রাজ্য

ড্রান্স গ্রুপে চাকরি দেওয়ার নাম করে এক নাবালিকা ছাত্রীকে বিহারে আটকে রেখে ধর্ষণ করার অভিযোগ

নজরে বাংলা, ঝাড়গ্রাম : ড্রান্স গ্রুপে চাকরি দেওয়ার নাম করে এক নাবালিকা ছাত্রীকে বিহারে আটকে রেখে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। নাবালিকার মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে গত ২৫ মার্চ অভিযুক্তকে পুলিস গ্রেপ্তার করেছে ঝাড়গ্রাম মহিলা থানার পুলিস। ধৃত যুবকের নাম, মৃত্যুঞ্জয় শীট (২৫)। তার বাড়ি ঝাড়গ্রাম থানার বহড়াকোঠা গ্রামে। অভিযুক্তকে ঝাড়গ্রামের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা আদালতে তোলা হয়। জানা গিয়েছে, মেয়েটি টিউশনি পড়তে যাওয়ার সময় মৃত্যুঞ্জয়ের সঙ্গে আলাপ হয়। ছেলেটি মেয়েটিকে বলে, অভাবের সংসারে পড়াশুনা করে কোন লাভ নেই। বিহারে ড্রান্সার গ্রুপে চাকরি করলে হাজার হাজার টাকা প্রতি মাসে পাওয়া যায়। গত ৪ ফেব্রুয়ারি তারা মেয়েটিকে ট্রেনে চাপিয়ে দুবিহারের গোপলাগঞ্জ এলাকায় যায় যুবকটি। অভিযুক্ত যুবকটি মেয়েটিকে গোপালগঞ্জেরএকটি বাড়িতে আটকে রেখে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। অভিযোগ, মেয়েটি ডান্স পার্টিতে স্বল্প পোষাকে নাচতে জন্য বাধ্য করা হয়। মেয়েটি রাজি না হওয়ায় তার সারা শরীরে সিগারেটের ছ্যাঁকা দেওয়া হয়। এমনকি ব্লেড দিয়ে চিরে দেওয়া হয় অভিযোগ। ওই অবস্থায় নাবালিকা মেয়েটি কোনমতে পালিয়ে ঝাড়গ্রামের বাড়িতে চলে আসে। তারপর সব ঘটনা খুলে জানায় তার মাকে।

NB

Leave a Reply