স্বাস্থ্য ও পরিষেবা

ডায়াবেটিস রোগ প্রতিরোধে ঝাড়খন্ড, উড়িষ্যা সহ বাংলায় ধারাবাহিক প্রচার

মহিউদ্দীন আহমেদ, সিউড়ী (বীরভূম) : ডায়াবেটিস এখন একটি সাধারণ রোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এলাকায় খোঁজ নিলে এখন ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে সর্বত্রই। তাই ডায়াবেটিস প্রতিরোধে পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খন্ড ও উড়িষ্যা জুড়ে প্রচার করছে “মমতা উইম্যান এন্ড সোস্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটি”। সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক ডাঃ নুরজামাল জিমি জানান, ডায়াবেটিস এখন একটা সাধারণ প্রচলিত রোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যতদিন বেঁচে থাকবে ততদিনই ঔষুধ খেয়ে বেঁচে থাকতে হবে। কিন্তু পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, আয়ুর্বেদ ঔষুধ খেয়ে এই রোগ তাড়াতাড়ি নির্মূল করা যায়। তাই আমরা বাংলা, ঝাড়খন্ড ও উড়িষ্যার বিভিন্ন সমাজসেবী সংস্হা, স্বনির্ভর দল, এক একটি এলাকার বিশিষ্ট ব‍্যাক্তিদের সহযোগিতায় ক্যাম্প করে প্রথমে ডায়াবেটিস রোগী চিহ্নিতকরন করা হচ্ছে। তারপর আর্য়ুবেদিক চিকিৎসকরা আর্য়ুবেদিক ঔষুধ দিয়ে তা সারিয়েও তুলছে। চিকিৎসক নূর জামাল জিমি বলেন, মানুষের পেটে পিত্তথলির ক্ষরণ ক্ষমতা কমে গেলে সুগার রোগের সৃষ্টি হচ্ছে। আর্য়ুবেদিক চিকিৎসার মাধ্যমে পিত্তথলির ক্ষরণ ক্ষমতা বাড়িয়ে সুগারের পরিমান কমিয়ে ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করা হচ্ছে। তিন রাজ্যে টানা একবছর ধরে ক্যাম্প করে ও চিকিৎসা চালিয়ে ভালো সাড়াও মিলেছে বলে জানালেন আয়োজকরা। মানুষের সেবায় সুস্হ্যতার কামনা করে বিশিষ্ট সমাজসেবী স্বর্ন ব্যবসায়ী জনশন ডায়মন্ড জুয়েলার্স-এর কর্নধার সঞ্জয় মন্ডল সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন। সঞ্জয় মন্ডল ও নুর জামাল জিমি একসুরে বলেন, আমরা চাই ডায়াবেটিস রোগ প্রতিরোধ করে মানুষ সুস্হ্যভাবে জীবনযাপন করুক। তাই এই নিয়েই আমাদের লাগাতর প্রচেষ্টা।

NB

Leave a Reply