রাজনীতি রাজ্য

কাটমানির টাকা খাওয়ার অভিযোগ বড়ঞা ব্লক তৃণমূলের বিরুদ্ধে

 

ভিক্টর ব্যানার্জী, নজরে বাংলা, মুর্শিদাবাদ : বড়ঞা ব্লকের সমস্ত গ্রাম পঞ্চায়েত এখন তৃণমূলের দখলে। এই ব্লকের সমস্ত জায়গায় তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত পঞ্চায়েতের প্রধান ও সদস‍্যরা বিভিন্ন প্রকল্পের সাথে কাটমানির টাকায় জড়িত রয়েছে। এদিন বড়ঞা ব্লকের সিপিআইএম ও কংগ্রেস যৌথভাবে বড়ঞা ব্লকের বিডিও সাগর ঘোষের কাছে ১০ দফা দাবি নিয়ে জমায়েত হয় ব্লক অফিসে প্রায় দুই দলের প্রায় কর্মী ও প্রদেশ কংগ্রেস সম্পাদক তাপস দাস সহ আরো জেলা নেতৃত্ব আসেন। যে দশ দফা দাবি নিয়ে এই দুই রাজনৈতিক দল জমায়েত হয় সেগুলির মধ্যে দেওয়া রয়েছে –

 


১) অবিলম্বে চাষির ধান ক্রয় করার ব্যবস্থা।
২)২০১৮/১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পের কাজে কাটমানি খেয়েছে শাসক দল এবং সেই টাকা অবিলম্বে ফেরত চায়।

৩) ২০১৭/১৮ ও ১৮/১৯ অর্থবর্ষের তালিকাভুক্ত পরিবার যাঁহারা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পের এনআরজিএ থেকে যে টাকা পাওয়ার কথা সেই টাকা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছায়নি।

৪) আবাস সংযুক্তিকরণের নামে গ্রাম পঞ্চায়েতগুলি সাধারণ মানুষকে প্রলোভন দেখিয়ে কাটমানি খেয়েছে শাসক দল, সেই টাকা ফেরত চায়।

৫) চলতি বছরে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার তালিকা প্রস্তুত করতে পঞ্চায়েতগুলো কোনো প্রকার কারচুপি বা স্কোর জাম্প না করতে পারে, কঠোর ভাবে তার ব্যবস্থা নিতে হবে।

৬) বৃক্ষরোপণ প্রকল্পের কাজে কাটমানি খেয়েছে শাসক দল। তার টাকা ফেরত ও চলতি বছরের পঞ্চায়েতভিত্তিক তালিকা প্রকাশ করতে হবে।

৭) সমস্ত গ্রাম পঞ্চায়েতে ১০০ দিনের কাজ দ্রুত চালু করতে হবে।

৮) বড়ঞা ব্লক এলাকায় পানীয় জলের সুব্যবস্থা করতে হবে।

৯) সমস্ত পঞ্চায়েতে চিঠিপত্র রিসিভ করার ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।

১০) বিবিধ

এই দশ দফা দাবি নিয়ে একত্রিত হয়ে বড়ঞা ব্লকের বিডিও-কে ডেপুটেশন জমা দেয় দুই দলেরই কর্মীরা। 

সমস্ত অভিযোগ ও আবেদন খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন বিডিও সাগর ঘোষ। জানিয়েছেন, সাধারণ মানুষের প্রতি কোনো অন্যয় তিনি মানবেন না। সমস্ত দিক তদন্ত করে দেখবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার টাকার কুড়ি হাজার টাকা করে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ এনেছে বিরোধী রাজনৈতিক দলের কর্মীরা।

NB

Leave a Reply