রাজ্য শিক্ষা ও পেশা

উপাচার্য সহ অধ্যাপকদের ঘেরাও বিশ্বভারতীর ছাত্রছাত্রীদের, পরীক্ষা বাতিল বিভিন্ন বিভাগে

মহিউদ্দীন আহমেদ, শান্তিনিকেতন : মঙ্গলবারে কোনও সমাধান সূত্র না বেরিয়ে আসায় বুধবারও অব্যাহত রইলো ছাত্রদের আন্দোলন। কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অস্হায়ী সামিয়ানা তৈরি করে ছাত্ররা অবস্হান বিক্ষোভে বসেছেন। কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের দেওয়ালে পোষ্টার দিয়ে তাঁরা প্রতিবাদের ভাষাও লেখা হয়েছে। ছাত্রদের তরফে সেখ জাহের আলি বলেন, কোন সমাধান সূত্র বের হয়নি। এখনও আন্দোলন চলছে। ফি বৃদ্ধির পাশাপাশি মঙ্গলবার ছাত্রছাত্রীরা যখন উপাচার্য সহ বেশ কিছু অধ্যাপককে আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখান তখন কয়েকজন উপাচার্য বেরিয়ে আসার চেষ্টা করলে বিক্ষোভরত ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয়। বেশ কিছু ছাত্রীর গায়ে অশ্লীল ভাবে হাত দেয় ও মারধর করে বলে পাল্টা সুর চড়ান ছাত্ররা। এবং ছাত্রদের গায়ে হাত তোলার জন্য অধ্যাপকদের বিরুদ্ধে ফের গর্জে উঠছে ছাত্রছাত্রীরা।

বুধবার পোষ্টারে লেখা হয়েছে অধ্যাপকরা যে ছাত্রছাত্রীদের গায়ে হাত দিয়েছে সেকথাও। এবং তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো হচ্ছে। ছাত্রীদের সঙ্গে অশালীন আচরন করা হল কেন তার জবাব চেয়েও পোষ্টার পড়েছে। এদিকে আজ শিক্ষাভবন সহ বেশ কিছু বিভাগে সেমিষ্টার পরীক্ষা ছিল। সেইসব পরীক্ষাও বাতিল করা হয়েছে। এদিকে বিশ্বভারতীর ইউজিসি কত টাকা গ্রান্ট দিয়েছিল, বিশ্বভারতীর আর্থিক বিষয় সহ বেশ কিছু জানতে তথ্য জানার অধিকার আইন মোতাবেক আবেদন করা হবে বলে ছাত্ররা আলোচনা চালাচ্ছে। সপ্তাহখানেকের মধ্যেই বিশ্বভারতীতে আরটিআই ফাইল করা হবে বলে জানা যাচ্ছে। তবে বুধবারের ছাত্রদের আন্দোলনের যে ভাষা তাতে ক্ষোভ আরও বাড়ছে সেটা পরিস্কার। বিশ্বভারতীর ফি বৃদ্ধির সঙ্গে অধ্যাপকদের গায়ে হাত দেবার পর বিশ্বভারতীর আর্থিক খোলনলচে খুঁচে দেখতে আইনকে হাতিয়ার করছে কর্তৃপক্ষ।

NB

Leave a Reply